দেশের পুঁজিবাজারে আরও বড় দরপতন

শেয়ার

সপ্তাহের দ্বিতীয় কর্মদিবসের চেয়ে তৃতীয় কর্মদিবস মঙ্গলবার (১২ এপ্রিল) আরও বড় দরপতন হলো দেশের পুঁজিবাজারে। এদিন শেয়ার কেনার চেয়ে বিক্রির চাপ এত বেশি ছিল যে, প্রায় অর্ধশতাধিক কোম্পানির ক্রেতাই খুঁজে পাওয়া যায়নি।

শুধু তাই নয়, দিনের শুরু থেকে শেষ সময় পর্যন্ত ব্যাংক, বিমা এবং আর্থিক প্রতিষ্ঠানসহ লেনদেন হওয়া প্রায় ৯০ শতাংশ কোম্পানির শেয়ারের দাম কমেছে।

ফলে বিনিয়োগকারীদের মধ্যে ভয় আতঙ্ক আরও বেড়েছে। তারা নতুন করে বাজারে আবারও ধসের হতে পারে এ আতঙ্কে শেয়ার বিক্রি করছেন। তার প্রভাবে দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূচক কমেছে ৬৪ পয়েন্ট। অপর পুঁজিবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সূচক কমেছে ১৫৪ পয়েন্ট।

সূচকের পাশাপাশি উভয় বাজারে কমেছে লেনদেনও। এর ফলে রোববার সূচক বৃদ্ধির পর সোম ও মঙ্গলবার টানা দুদিন দরপতন হলো। তার আগে গত সপ্তাহ টানা চারদিন দরপতন হয়েছিল।

ডিএসইর তথ্য মতে, মঙ্গলবার বাজারটিতে ৩৭৮টি প্রতিষ্ঠানের মোট ১২ কোটি ৪৪ লাখ ৭১ হাজার ৬৩৭টি শেয়ার ও ইউনিট কেনাবেচা হয়েছে। এদিন ডিএসইতে লেনদেন হওয়া কোম্পানিগুলোর মধ্যে দাম বেড়েছে ১৮টির, কমেছে ২৩৭টির, আর অপরিবর্তিত রয়েছে ২৩টি কোম্পানির শেয়ারের।

লেনদেন হওয়া প্রায় সব শেয়ারের দাম কমায় এদিন ডিএসইর প্রধান সূচক আগের দিনের চেয়ে ৬৪ পয়েন্ট কমে ৬ হাজার ৫৭৪ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। ডিএসইর অপর দুই সূচকের মধ্যে ডিএসইএক্স আগের দিনের চেয়ে কমেছে ১১ দশমিক ৮৭ পয়েন্ট এবং ডিএস-৩০ সূচক কমেছে ২০ দশমিক ২৬ পয়েন্ট।

এদিন ডিএসইতে ৫৩২ কোটি ৯৫ লাখ ৮ হাজার টাকার শেয়ার ও ইউনিটের লেনদেন হয়েছে। এর আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ৬৪৩ কোটি ৫৬ লাখ ৯৭ হাজার টাকার শেয়ার। অর্থাৎ আগের দিনের চেয়ে লেনদেন কমেছে।

ডিএসইতে মঙ্গলবার লেনদেনের শীর্ষে ছিল আইপিডিসির শেয়ার। এরপর ছিল বেক্সিমকো লিমিটেড, লাফার্জহোলসিম, জেনেক্স ইনফোসেস, বিডি ল্যাম্পস, স্কয়ার ফার্মা, সোনালী পেপার, লঙ্কা বাংলা ফাইন্যান্স, ফরচুন সুজ এবং ওরিয়ন ফার্মাসিটিউক্যালস লিমিটেড।

অপর পুঁজিবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ১৫৪ দশমিক ২৫ পয়েন্ট কমে ১৯ হাজার ৩৪০ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।

সিএসইতে ২৫২টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে ১৯টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দাম বেড়েছে, কমেছে ২১৩টির, আর অপরিবর্তিত রয়েছে ২০টির দাম।

এ বাজারে ১০ কোটি ৬২ লাখ ৬৬ হাজার ৮২৮ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ২৪ কোটি ৯১ লাখ ২৮ হাজার ৪ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

সর্বশেষ

Welcome Back!

Login to your account below

Create New Account!

Fill the forms bellow to register

Retrieve your password

Please enter your username or email address to reset your password.

Add New Playlist