ব্রিটেন ও ১৪ কমনওয়েলথ দেশের নতুন রাজা হচ্ছেন চার্লস

শেয়ার

ব্রিটেনকে সবচেয়ে বেশি সময় শাসন করা রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের মৃত্যুর পর ব্রিটেনের রাজা হলেন ১৯৬৯ সালে ব্যাকিংহাম প্যালেসে মাথায় যুবরাজের মুকুট পরা রানির বড় ছেলে চার্লস। ব্রিটিশ সাম্রাজ্যের নিয়ম অনুসারে, রানির মৃত্যুর পর স্বয়ংক্রিয়ভাবে এবং কোনো ধরনের আনুষ্ঠানিকতা ছাড়াই রাজার পদবি পাবেন সাবেক প্রিন্স অব ওয়েলস। সেই হিসেবে চার্লসই ব্রিটেনের নতুন রাজা।একই সঙ্গে তিনি হবেন অস্ট্রেলিয়া, কানাডা ও নিউজিল্যান্ডসহ আরও ১৪ টি কমনওয়েলথ দেশেরও রাজা। জানা গেছে প্রিন্স চার্লস ‘রাজা তৃতীয় চার্লস’ উপাধি নিয়ে সিংহাসনে আরোহণ করবেন৷ রানির মৃত্যুর ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তাকে আনুষ্ঠানিকভাবে রাজা ঘোষণা করা হবে।

প্রিন্স চার্লস নতুন রাজা হওয়ায় তার স্ত্রী পরিচিত হবেন কুইন কনসর্ট হিসেবে। চার্লসের ‘প্রিন্স অব ওয়েলস’ উপাধিপ্রাপ্ত হবেন তারই বড় ছেলে প্রিন্স উলিয়াম। তার বড় ছেলে প্রিন্স উইলিয়াম অবশ্য চার্লসের ছেড়ে যাওয়া প্রিন্স অব ওয়েলস পদবি সঙ্গে সঙ্গে পাবেন না। বাবার ডিউক অব কর্নওয়াল পদবি পরবর্তীতে তার হয়ে যাবে। উইলিয়ামের স্ত্রী ক্যাথরিন সেক্ষেত্রে হচ্ছেন ডাচেস অফ কর্নওয়াল।

নতুন রাজা ঘোষণা করতে চার্লসকে পার করতে হবে বেশকিছু আনুষ্ঠানিকতা। লন্ডনের সেইন্ট জেমসেস প্যালেসে সাবেক ও বর্তমান জ্যেষ্ঠ এমপিদের দল, জ্যেষ্ঠ বেসামরিক কর্মকর্তা, কমনওয়েলথের হাই কমিশনার এবং লন্ডনের লর্ড মেয়রের সমন্বয়ে গঠিত ‘অ্যাকসেশন কাউন্সিল’ ঘোষণা করবে নতুন রাজার নাম। এ সময় নতুন রাজার অংশ নেয়ার নিয়ম নেই। একদিন পর আয়োজিত পুনরায় আয়োজিত অ্যাকসেশন কাউন্সিলের সভায় উপস্থিত থাকবেন। বৃটিশ সম্রাজ্যের রেওয়াজ অনুসারে, ব্রিটিশ রাজা হিসেবে ক্ষমতা গ্রহণের সময় ‘শপথ বাক্য’ পাঠ করানোর বদলে দেওয়া হয় ঘোষণা। ১৮ শতকের প্রথম দিকের রেওয়াজের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে নতুন রাজা স্কটল্যান্ডের চার্চকে রক্ষা করার শপথ করবেন।১৯৫২ সালের পর এই প্রথম ইংল্যান্ডের জাতীয় সঙ্গীতে ‘গড সেইভ দ্য কুইন’-এর বদলে যুক্ত হবে ‘গড সেইভ দ্য কিং’।

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

সর্বশেষ

Welcome Back!

Login to your account below

Create New Account!

Fill the forms bellow to register

Retrieve your password

Please enter your username or email address to reset your password.

Add New Playlist