হাটহাজারীতে ‘চেরাগের’ আলোতে লেখাপড়া করছেন দুই বোন

শেয়ার

শতভাগ বিদ্যুতের দেশেও চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলার পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ডের দুই বোনের লেখাপড়া করতে হয় কেরোসিনের চেরাগ জ্বালিয়ে।

হাটহাজারী আলীপুর স্কুল এন্ড কলেজের এ দুই শিক্ষার্থী একজনের নাম নিহা আকতার পড়েন ৯ম শ্রেণীতে। তার ছোটবোন মেহেরুন নেছা পড়েন ৭ম শ্রেণীতে। তারা হাটহাজারী পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, জরাজীর্ণ বিদ্যুৎবিহীন মাটির ঘরে তাদের বসবাস। তাদের বাবা, বাচা মিয়া একজন বুদ্ধি প্রতিবন্ধী মানুষ, যার উপার্জন বলতে হাটহাজারীর পশ্চিমের পাহাড় এবং উপজেলার বিভিন্ন জায়গা থেকে শাক লতা পাতা ইত্যাদি তুলে এনে ২০/৩০ টাকায় বিক্রি করা। মাঝে মধ্যে চায়ের দোকানে পানি সরবরাহ করেন বুদ্ধি প্রতিবন্ধী ওই দুই শিক্ষার্থীর বাবা।

নিহা ও নেছার মা জাহানারা বেগম অন্যের বাসা বাড়িতে কাজ করেন। বৃদ্ধ দাদিসহ ৫ জনের সংসারের দু বেলা খাবার জোগাড় করতে যেখানে নুন আনতে পানতা ফুরায় সেখানে তাদের দুই বোনের লেখাপড়া খরচ যোগাতে গিয়ে অনেক সময় না খেয়ে দিন কাটে পরিবারটির।

তাদের নেই পুপেয় খাবার পানির ব্যবস্থা। পাশের বাড়ি থেকে ১০০ টাকার বিনিমিয়ে খাবার পানি কিনে পান করতে হয় এই অসহায় পরিবারটির। তাছাড়া বর্ষায় ভার করেছে তাদের কপালে নতুন চিন্তা।

শিক্ষার্থীদের মা জাহানারা বেগম বলেন, জরাজীর্ণ ঘরের চালের বেহাল দশায় বৃষ্টি হলে চাল দিয়ে পানি পড়ে। ঘরের মাটির দেয়ালগুলো ভাঙন ধরেছে ,দরজার উপরের অংশের দেয়াল আগে একবার পড়ে গিয়েছে। যে কোন সময় দেয়াল ধ্বসে দুর্ঘটনা ঘটার আশংকা করছেন তিনি।

স্থানীয় বাসিন্দা সেলিম উদ্দীন বলেন, আসলে পরিবারটি খুবই হত দরিদ্র। তাদের ঘরে দুইটা পয়সা আয় করার মতো কোনো সদস্য নেই। স্বামী থেকেও নেই, মানসিক প্রতিবন্ধী হওয়ায় তার নিদিষ্ট কোনো আয় নেই। ঘরে বৃদ্ধ শাশুড়িসহ দুই মেয়ে নিয়ে অনেক কষ্টে দিন কাটে তাদের।

এ বিষয়ে ১ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার নুর হোসেন বলেন, বাচা মিয়ার পরিবারের বিষয়ে জানা ছিল না। সরকারের পক্ষ থেকে আবার যদি ঘর বরাদ্ধ আসে তবে তাদের নাম প্রথমে রাখব বলে জানান।

এ ব্যাপারে পৌর প্রশাসক ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. শাহিদুল আলম বলেন, ভুক্তভোগীর কি কি অসুবিধা আছে , একটা আবেদন নিয়ে সশরীলে উপস্থিত হয়ে সমস্যাগুলো জানালে সরকারী যে সমস্ত সাহায্যের খাত আছে, সেখান থেকে যথাসম্ভব সহযোগিতা দেওয়া যাবে। তা ছাড়া টিনের চাউনি নষ্ট হলে টিনের ব্যবস্থা করা হবে।

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

সর্বশেষ

Welcome Back!

Login to your account below

Create New Account!

Fill the forms bellow to register

Retrieve your password

Please enter your username or email address to reset your password.

Add New Playlist