বাকি ১৪ শতাংশ কাজ শেষ হলেই খুলবে স্বপ্নের বঙ্গবন্ধু টানেল

শেয়ার

দেশে চলমান মেগা প্রকল্পের মধ্যে বন্দরনগরীর পতেঙ্গায় কর্ণফুলী নদীর তলদেশ দিয়ে দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার প্রথম টানেল নির্মাণ কর্মযজ্ঞ অন্যতম। স্বপ্নের বঙ্গবন্ধু টানেলের নির্মাণ কাজের আর মাত্র ১৪ শতাংশ বাকি। অর্থাৎ মোট কাজের ৮৬ ভাগ সম্পন্ন হয়েছে।

এটি চালু হলে চট্টগ্রাম শহরের সঙ্গে আনোয়ারা, বাঁশাখালী, পটিয়া ও চন্দনাইশসহ দক্ষিণ চট্টগ্রাম তথা কক্সবাজার জেলার যোগাযোগ ব্যবস্থায় আমূল পরিবর্তন আসবে। পাশাপাশি দক্ষিণ চট্টগ্রামে শিল্পায়ন, আবাসন, পর্যটন শিল্পের নতুন দুয়ার খুলবে।

প্রকল্প সংশ্লিষ্টরা বলছেন, নদীর তলদেশে দুটি সুড়ঙ্গ নির্মাণের কাজ আগেই শেষ হয়েছে। এই সুড়ঙ্গ দিয়ে গাড়ি চলাচলের যেই পথ তারও কাজ শেষের দিকে। এখন মূল চ্যালেঞ্জ কোনো দুর্ঘটনা ঘটলে এক সুড়ঙ্গ থেকে আরেকটি সুড়ঙ্গে যাওয়ার পথ তৈরি করা। আর এই কাজটি অত্যন্ত ঝুকিপূর্ণ। এছাড়া সমানতালে চলছে অগ্নি নিরাপত্তামূলক ফায়ার প্লেট এবং ডেকোরেশন প্লেট বসানো।

প্রকল্পের কাজ বাস্তবায়নে ২২৫ জন চীনা প্রকৌশলী এবং শ্রমিকের পাশাপাশি দেশীয় হাজারেরও বেশি শ্রমিক ও প্রকৌশলী দিন রাত কাজ করছেন।

কর্ণফুলী টানেল নির্মাণ প্রকল্পের পরিচালক মো. হারুনুর রশীদ বলেন, ‘চলতি বছরের মে মাস পর্যন্ত প্রকল্পের কাজ ৮৬ শতাংশ শেষ হয়েছে। বাকি কাজ দ্রুত শেষ করে ডিসেম্বর মাসে উদ্বোধনের মাধ্যমে যান চলাচলের জন্য টানেলটি উন্মুক্ত করার লক্ষ্য নিয়েই আমরা কাজ করছি।’

সব কিছু ঠিক থাকলে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে কাজ শেষ করা সম্ভব হবে বলেও আশাবাদী এ কর্মকর্তা। টানেল চালু হলে দৈনিক ১৭ হাজার যানবাহন পার হতে পারবে বলে জানান তিনি।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ এবং চীনের যৌথ অর্থায়নে প্রায় ১০ হাজার ৩৭৪ কোটি টাকার এ প্রকল্পের বাস্তবায়ন করছে চায়না কমিউনিকেশন কনস্ট্রাকশন কোম্পানি।

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

সর্বশেষ

Welcome Back!

Login to your account below

Create New Account!

Fill the forms bellow to register

Retrieve your password

Please enter your username or email address to reset your password.

Add New Playlist