গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয় কর্তৃক নিবন্ধিত। নিবন্ধন নং – ৬০
Saturday, 15 June 2024

প্রজ্ঞাপনেই সীমাবদ্ধ লকডাউন: বাস্তবায়নে নেই পরিকল্পনা

প্রজ্ঞাপনের মধ্যেই লকডাউন সীমাবদ্ধ। তা বাস্তবায়নে কোনও পরিকল্পনা নেই বলে মনে করেন জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা। লকডাউনের মাধ্যমে সংক্রমণ প্রাথমিকভাবে কমে আসলেও আবারও তা বেড়ে যাওয়ার শঙ্কা করছেন তারা। তাই কার্যকর লকডাউন বাস্তবায়নে সরকারের পাশাপাশি সমাজের উচ্চবিত্তদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে সীমিত পরিসরে লকডাউন শুরু হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১ জুলাই) থেকে শুরু হবে সর্বাত্মক লকডাউন। এর মাধ্যমে প্রাথমিকভাবে সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে আসবে- অতীত অভিজ্ঞতা এমনটাই। কিন্তু তারপরও বেশ কিছু প্রশ্ন উঠেছে জনস্বাস্থ্যবিদদের বক্তব্যে।

তাদের মতে, লকডাউন কেবল প্রজ্ঞাপনের মধ্যেই সীমাবদ্ধ। তা বাস্তবায়নের পরিকল্পনার ঘাটতি রয়েছে।

জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ ডা. বে-নজির আহমেদ বলেন, এটার জন্য যে ব্যাপক প্রস্তুতি নেয়া দরকার তার কোনোটাই নেয়া হয়নি। কেউ এটা ঘোষণা করছে না, আমরা এই এই প্রস্তুতি নিচ্ছি।

তারা বলছেন, নিম্ন আয়ের মানুষের জন্য কোনও দিকনির্দেশনা নেই। মানুষের নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য কেনাকাটায়ও নেই কোনও গাইডলাইন। এমন অনেক কিছুই না থাকায় খুব একটা ফল দেবে না এই লকডাউন।

জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ ডা. বে-নজির আহমেদ আরও বলেন, পাঁচ কোটি-ছয় কোটি লোক যদি বাজারে যায় তাহলে লকডাউন কোথায়? আর যদি এসব মানুষকে বাজারে যেতে দিতে না চান তাহলে তাদের বাসা-বাড়িতে প্রয়োজনীয় বাজার পৌঁছে দিতে হবে। সেই প্রস্তুতি কী আমাদের আছে?

গণপরিবহন বন্ধ রেখে অফিস-আদালত খোলা রাখার সিদ্ধান্তকে অপরিপক্বতার পরিচয় বলেও মত তাদের।

এ জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ আরও বলেন, এগুলো আসলে কোনও চিন্তা-ভাবনা না করেই ঘোষণা দেয়া। উদাহরণ হিসেবে বলা যেতে পারে, একজন মানুষ সাভার থাকে, তার অফিস ঢাকায়। সে কিভাবে অফিস করবে?

সরকারের পাশাপাশি সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে উচ্চবিত্তদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়ে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এর মাধ্যমে নিম্ন আয়ের মানুষকে ঘরে রাখা সম্ভব হবে।

জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ ডা. মুশতাক হোসেন বলেন, যখন আমাকে বাধ্য হয়ে সব কিছু বন্ধ করতে হচ্ছে তখন সরকারের পাশাপাশি এলাকাভিত্তিক যারা সচ্ছল ব্যক্তি আছেন তাদের এগিয়ে আসতে হবে।

লকডাউনের চেয়েও করোনা রোগী এবং উপসর্গ যুক্তদের সঙ্গ থেকে শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখা সংক্রমণ প্রতিরোধে সবচেয়ে বেশি কার্যকর বলে জানান জনস্বাস্থ্যবিদরা।

সর্বশেষ

টেকনাফ সৈকতে ভেসে এল অজ্ঞাত ব্যক্তির মরদেহ

কক্সবাজারের টেকনাফে সমুদ্র সৈকতে ভেসে এসেছে অজ্ঞাত পরিচয় এক...

হালিশহরে ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার

চট্টগ্রাম নগরীর হালিশহরে একটি গোডাউন থেকে এক ব্যবসায়ীর লাশ...

চট্টগ্রামের বাকলিয়া থেকে পলাতক আসামি গ্রেফতার

রাঙামাটির কাপ্তাই থানা পুলিশের অভিযানে চট্টগ্রাম নগরীর বাকলিয়া থেকে...

ঈদযাত্রায় সড়কে চাপ আছে, যানজট নেই: ওবায়দুল কাদের

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী...

চবিতে ছিনতাইকারীদের কোপে বিএমএ শিক্ষার্থী আহত

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে ঘুরতে এসে ছিনতাইকারীদের রামদার কোপে আহত...

হজের আনুষ্ঠানিকতা শুরু

সারাবিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে এসে মক্কায় সমবেত হওয়া লাখ...

আরও পড়ুন

হালিশহরে ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার

চট্টগ্রাম নগরীর হালিশহরে একটি গোডাউন থেকে এক ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।শুক্রবার (১৪ জুন) বিকাল ৩ টায় বসুন্ধরা আবাসিকের ৩ নম্বর সড়ক থেকে লাশটি...

চট্টগ্রামের বাকলিয়া থেকে পলাতক আসামি গ্রেফতার

রাঙামাটির কাপ্তাই থানা পুলিশের অভিযানে চট্টগ্রাম নগরীর বাকলিয়া থেকে পলাতক আসামি আকাশ করকে (২৬) গ্রেফতার করা হয়েছে।গতকাল বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১০টায় বাকলিয়া থানা এলাকা...

চবিতে ছিনতাইকারীদের কোপে বিএমএ শিক্ষার্থী আহত

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে ঘুরতে এসে ছিনতাইকারীদের রামদার কোপে আহত হয়েছেন বাংলাদেশ মিলিটারি একাডেমির (বিএমএ) এক শিক্ষার্থী।গতকাল বৃহস্পতিবার রাত আটটার দিকে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের পামবাগান এলাকায়...

হজের আনুষ্ঠানিকতা শুরু

সারাবিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে এসে মক্কায় সমবেত হওয়া লাখ লাখ ধর্মপ্রাণ মুসলমানের অংশগ্রহণে পবিত্র হজ পালনের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়েছে।সৌদি প্রেস এজেন্সি জানিয়েছে, মহানবী হযরত...