ADVERTISEMENT

কর্ণফুলী আমার চিরদিন মনে থাকবে:বিদায়ী এসিল্যান্ড সুকান্ত সাহা

মোহাম্মদ মহিউদ্দিন, স্টাফ রিপোর্টার:

0
শেয়ার
23
দেখেছে
ADVERTISEMENT

আমি প্রজাতন্ত্রের একজন কর্মকর্তা হিসেবে কাজ করেছি। যথা সাধ্য চেষ্টা করেছি সরকারের অর্পিত দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করার। মানুষ তার কাম্যর মধ্যে দিয়ে চিরজীবন বেঁচে থাকে, আমিও আমার কর্ম দিয়ে আপনাদের মাঝে বেঁচে থাকতে চাই। পাশাপাশি ভূমি অফিসের সেবা মানুষের দৌড গোডায় নির্বিঘে পৌঁছে দেয়ার চেষ্টা করেছি। সকলে যাতে ভূমি অফিসের সেবা শতভাগ পায়তার প্রচেষ্টা করেছি। এসব কর্ম বাস্তবায়ণ করতে আপনাদের আন্তরিক সহযোগীতায় ছিল আমার প্রেরণা কর্ণফুলী আমার চিরদিন মনে থাকবে।

আজ সোমবার (১৯ জুলাই) দুপুরে কর্ণফুলী উপজেলার ভূমি অফিসের হল রুমে সহকারী কমিশনার (ভূমি) সুকান্ত সাহার বদলীজনিত বিদায় উপলক্ষে বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে এইসব কথা বলেন সদ্য বিদায়ী এসিল্যান্ড সুকান্ত সাহা।

সদ্য বিদায়ী এসিল্যান্ড সুকান্ত সাহা আরো বলেন,আপনারা যারা আমার সেবাগ্রহিতা ছিলেন আপনাদের সহযোগিতার কথাও কৃতজ্ঞচিত্তে স্মরণ করছি। সবশেষে আমার ত্রুটিগুলো ক্ষমাসুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন। যদি এতটুকু সাফল্য কিছু থাকে তার সবটুকুর অংশীদার আপনারা। আপনারা সকলে ভাল থাকবেন। আপনাদের সকলের নিকট দোয়া প্রত্যাশী।’

ADVERTISEMENT

উপজেলা ভূমি অফিসের আয়োজনে বিদায়ী সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন কর্ণফুলী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ( ইউএনও) শাহিনা সুলতানা।

ইউএনও শাহিনা সুলতানা বলেন সরকারি চাকুরিজীবী হিসেবে বদলিজনিত কারণে কোনো জেলায় বা উপজেলায় স্থায়ী হওয়ার সুযোগ নেই প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের। উপজেলায় কর্মরত অবস্থায় সহকর্মী, জনপ্রতিনিধি, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দের অনেক রকমের সহয়তা দিয়েছে সুকান্ত সাহা।

তিনি বলেন আমাদের সম্পর্ক দপ্তরে হলেও আমরা ছিলাম ভাই বোন যখন আমি করোনায় আক্রান্ত ছিলাম তখন সুকান্ত পুরো উপজেলার দায়িত্ব সর্ফলতার সাথে পালন করেছে।কর্ণফুলীতে সুকান্তর যোগদানের পর ভূমি বিষয়ে যেসব দায়িত্ব তা সত্যিই অতুলনীয়। তার মেধা,দক্ষতা ও অক্লান্ত পরিশ্রম সত্যিই প্রশংসনীয়।

ADVERTISEMENT

নাজির দেবাশীষ রুদ্রের সঞ্চলনায় বিদায়ী অনুষ্টানে আরও উপস্থিত ছিলেন কানুন গোর নূর চৌধুরী,অফিস সহকারী মাহবুবল আলম,ভূমি সহকারী কর্মকর্তা,মোঃ রফিকুল ইসলাম,সুমন চৌধুরী, নুরুল হাসান মামুন, মোঃ নাছির, ইফতেখার উদ্দিন, সাজ্জাদ হোসেন, ভূমি অফিসের স্টাফ মোঃ ইউসুফ,জনি,শাকিল, মহসিন, জাহাঙ্গীর, আইয়ুব,শহীদসহ প্রমুখ।

প্রসঙ্গত গত ২০ জুন চট্টগ্রাম অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (সার্বিক) খন্দকার জহিরুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনের আদেশে কর্ণফুলী উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সুকান্ত সাহাকে কর্ণফুলী থেকে কুমিল্লার দাউদকান্দি উপজেলায় বদলি করা হয়েছে। একই আদেশে খাগড়াছড়ির রামগড় উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) শিরীন আক্তারকে কর্ণফুলীর এসিল্যান্ড হিসেবে পদায়ন করা হয়েছে।তিনি ৩৫তম বিসিএসের ক্যাডার তার নিজ জেলা নেত্রকোনা।

সদ্য বিদায়ী এসিল্যান্ড সুকান্ত সাহা কর্ণফুলী উপজেলায় করোনার শুরু থেকে সাধারণ মানুষ যখন আতঙ্কিত ছিলো, তখন থেকেই স্বাস্থ্যবিধি মানাতে যেভাবে মাঠে নেমেছেন, এটি ছিল সত্যিই প্রশংসনীয়।

তাছাড়া, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে নিয়মিত উপজেলার বাজার মনিটরিং করে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দাম সহনশীল রাখতে অবদান রেখেছেন। পাশাপাশি উপজেলা ভূমি অফিসে সাধারণ মানুষের কাছে কাঙ্খিত সেবা পৌঁছাতে বেশ ভূমিকা রেখে সরকার তথা চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের সুনাম বৃদ্ধি করেছেন।

আরো নিউজ

পরের সংবাদ

আপনার গুরুত্বপূর্ণ মতামত দিন, আপনার মতামত আমাদের পথ চলার পাথেয়

সর্বশেষ সংবাদ

আর্কাইভ